Saturday , 4 December 2021
Home / খবর / মাদককাণ্ডে শাহরুখপুত্র আরিয়ান জড়িত, প্রমাণ পায়নি হাইকোর্ট

মাদককাণ্ডে শাহরুখপুত্র আরিয়ান জড়িত, প্রমাণ পায়নি হাইকোর্ট


মুম্বাই, ২০ নভেম্বর – মাদক মামলায় বলিউড তারকা শাহরুখ খানের ছেলে আরিয়ান খানের জামিন আদেশের রায়ের বিস্তারিত কপি প্রকাশ করেছে মুম্বাই হাইকোর্ট।

জামিন আদেশের রায়ে বলা হয়েছে, মাদক মামলায় প্রাথমিকভাবে আরিয়ান খানের জড়িত থাকার কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি। এমনকি এখনো এমন কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি, যা থেকে আদালত সিদ্ধান্তে পৌঁছুতে পারে যে, আরিয়ান, আরবাজ মার্চেন্ট ও মুনমুন ধামেচা কোনো ষড়যন্ত্রে লিপ্ত ছিলেন।

আরিয়ান খানকে গত ২ অক্টোবর গ্রেফতার করে ভারতের নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো (এনসিবি)। মুম্বাই থেকে গোয়াগামী ক্রুজে মাদক পার্টিতে যোগ দেওয়ার অভিযোগ ছিল তার বিরুদ্ধে। এরপর আরিয়ানসহ তার বন্ধুদের পুলিশী হেফাজতে নেওয়া হয়। আরবাজ মার্চেন্ট, মুনমুন ধামেচাসহ আরও ২০ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। আরিয়ান খানকে তিন সপ্তাহ মুম্বাইয়ের আর্থার রোড জেলে বন্দি রাখা হয়। ২৮ অক্টোবর আরিয়ান হাইকোর্ট থেকে জামিন পান।

২০ নভেম্বর (শনিবার) আরিয়ান খানের সর্বশেষ জামিন আদেশ জারি করে মুম্বাই হাইকোর্ট। এতে মামলা সংক্রান্ত যাবতীয় বিবরণ রয়েছে। হাইকোর্ট আরও উল্লেখ করেছে, অভিযুক্ত ব্যক্তিদের কাছে বাণিজ্যিকভাবে ব্যবহারের জন্য মাদক পাওয়া গিয়েছে, তার অর্থ এই নয় যে তাদের অপরাধের ইচ্ছা ছিল।

বিচারপতি নীতিন সামব্রে জানিয়েছেন, আরিয়ানের কাছে কোনো মাদক পাওয়া যায়নি। আরবাজ ও মুনমুনের কাছ থেকে যে পরিমাণ মাদক উদ্ধার করা হয়েছে, তা আইন অনুযায়ী কম। এ অবস্থায় অভিযুক্ত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের ধারা প্রয়োগ করতে হলে যথাযথ প্রমাণ থাকতে হবে। কিন্তু প্রাথমিকভাবে সে রকম কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি। আরিয়ান খানের হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটেও এমন আপত্তিকর কিছু পাওয়া যায়নি, যার ওপর ভিত্তি করে বলা যায় আরবাজ ও মুনমুনের সঙ্গে মিলে আরিয়ান ষড়যন্ত্র করছেন।

জামিন আদেশে বলা হয়েছে, আরিয়ান খান, আরবান মার্চেন্ট ও মুনমুন ধামেচা একই প্রমোদতরীতে ছিলেন। কেবলমাত্র এই যুক্তিতে তাদের বিরুদ্ধে ষড়ষন্ত্রের যুক্তি নেই এবং মাদক আইনের ২৯ ধারা প্রয়োগ করা যাবে না।

এম এস, ২০ নভেম্বর





web hit counter